মৌলভীবাজারে জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৮টি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র

সৈয়দ মুন্তাছির রিমন,বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: জেলা পরিষদ নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে ততই উত্তেজনা যেন বাড়ছে মৌলভীবাজারে। সাধারণ মানুষের মধ্যে তেমন আগ্রহ না থাকলেও প্রার্থীও ভোটাররা যেন নড়েচড়ে বসেছেন। জেলার ১৫টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮চি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ কলে চিহ্নিত করে বিশেষ নিরাপত্তা চেয়েছেন সাবেক এমপি ও চেয়ারম্যান প্রার্থী এমএম শাহীন। জেলা পরিষদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার জেলায় ৭টি উপজেলা, ৬৭টি ইউনিয়ন ও ৫টি পৌরসভা নিয়ে। মোট ভোটার সংখ্যা ৯৫৬। ১৫টি ভোট কেন্দ্রে জনপ্রতিনিধি ভোটাররা ৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী মধ্য থেকে বেছে নেবেন একজনকে। ইতোমধ্যে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা শুরু হয়েছে। এতে প্রার্থীদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে একটা আশঙ্কা বিরাজ করছে।
চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সাবেক এমপি এমএম শাহীন জেলা প্রশাসক বরাবরে ইতোমধ্যে একটি লিখিত আবেদন করেছেন। জেলার ১৫ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৮টিকে তিনি ঝুঁকিপূর্ণ বলে উল্লেখ করে কেন্দ্রগুলোতে বিশেষ নিরাপত্তা প্রদানের দাবি জানান। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলো হলো ০১ নং ওয়ার্ডের পাথারিয়া ছোটলিখা উচ্চ বিদ্যালয়, ০৩নং ওয়ার্ডের হরিরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ০৫ নং ওয়ার্ডের বরমচাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ০৬ নং ওয়ার্ডের নবীন চন্দ্র মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, ০৭ নং ওয়ার্ডের নয়াবাজার কেসি উচ্চ বিদ্যালয়, ০৯ নং ওয়ার্ডের ইসলামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৪ নং ওয়ার্ডের কমলগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৫ নং ওয়ার্ডের এএটিএম বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়।
জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক ও আওয়ামী লীগ মনোনীত আলহাজ্ব আজিজুর রহমান, বিএনপি নেতা ও সাবেক এমপি এমএম শাহীন, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহিম সিআইপি, প্রবীণ সাংবাদিক বখসি ইকবাল আহমদ, শাহাব উদ্দিন সাবলু ও সোহেল আহমদ। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও সাবেক জেলা পরিষদ প্রশাসক সাদা মনের মানুষ হিসেবে পরিচিত আলহাজ্ব আজিজুর রহমানের সাথে বিএনপি নেতা ও সাবেক এমপি এমএম শাহীনের মধ্যে চুড়ান্ত লড়াই হবে বলে ভোটারদের অভিমত। এছাড়া জেলা পরিষদ সাধারণ সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৮৬ জন এবং সংরক্ষিত আসনে মহিলা সদস্য পদে ২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সকলেই শেষ মুহুর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত। ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা, উপজেলা পরিষদ ও ভোট কেন্দ্রগুলো পোস্টার ব্যানারে চেয়ে গেছে। এব্যাপারে মৌলভীবাজার জেলা নির্বাচন অফিসার কাজী মোঃ ইস্তাফিজুল হক আকন্দ প্রতিবেদককে জানান চেয়ারম্যান প্রার্থী এমএম শাহীনের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করা হয়েছে। নির্বাচনের আগেই এব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

bangla

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *