একুশে উদযাপনে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে বিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বর্তমানকণ্ঠ ডটকম: বাংলা ভাষার অধিকার রক্ষায় ১৯৫২ সালে রাজপথে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিল একঝাঁক তরুণ। তাদের আত্মবলিদানের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয় মহান অমর একুশ। বাঙালি পায় তার মাতৃভাষায় কথা বলার স্বাধীনতা।

১৯৯৯ সালে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক সংস্থা ইউনেস্কো একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি প্রদান করে। দিনটি এখন বিশ্বব্যাপী বার্ষিক ছুটির দিন হিসেবে পালিত হয়ে থাকে।

এরই ধারাবাহিকতায় এবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের চেতনাকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরতে এবং দিবসটির উদযাপনে আমেরিকান জনগণের অংশগ্রহণ বাড়ানোর লক্ষ্যে দেশটির কংগ্রেসে নতুন একটি বিল উত্থাপন করা হয়েছে। বিলটি উত্থাপন করেছেন মার্কিন কংগ্রেস সদস্য গ্রেস মেং।

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নাগরিকদের জন্য একুশে ফেব্রুয়ারি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ একটি দিন। গ্রেস মেং দিনটির তাৎপর্য সবার সামনে তুলে ধরার লক্ষ্যেই নতুন বিল উত্থাপন করেন।

মার্কিন কংগ্রেসে গ্রেস মেংয়ের উত্থাপিত বিলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের লক্ষ্য ও আদর্শকে সমর্থনের আহ্বান জানানো হয় কংগ্রেস সদস্যদের প্রতি। তাছাড়া দিবসটিকে যথাযথ কর্মসূচি ও আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে পালনের জন্য মার্কিনিদের সচেতনতা বাড়ানোর আহ্বানও জানানো হয়েছে ওই বিলে।

কংগ্রেসে মেং নিউ ইয়র্কের প্রতিনিধিত্ব করছেন। তার নির্বাচনী এলাকায় বহু বাংলাদেশি ও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মানুষ রয়েছে। এর আগেও তিনি কংগ্রেসে দু’বার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস নিয়ে বিল উত্থাপন করেছেন, তবে তা পাস হয়নি। কংগ্রেস সদস্য জোসেফ ক্রাউলেও একই রকম বিল উত্থাপন করেছেন কংগ্রেসে।

মেং বলেন, ‘এই বিল হলো আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির এক ব্যতিক্রমী পন্থা। আবারও কংগ্রেসে এই বিল উত্থাপন করতে পারায় আমি গর্বিত।’

bangla

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *