নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবস ও গণহত্যা দিবস উদযাপন

সুহাস বড়ুয়া,ইংল্যান্ড,বর্তমানকন্ঠ ডটকম: গত ২৬শে মার্চ বোস্টনের ক্যামব্রিজ শহরের ওয়াশিংটন স্ট্রিটের পিসানী সেন্টার মিলনায়তনে নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে পালিত হল প্রথম গণহত্যা দিবস ও ৪৭তম স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস।
আওয়ামী লীগ সভাপতি ওসমান গনির সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুহাস বড়ুয়া’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে পাক হানাদার ও তাদের দেশীয় দোসরদের নিষ্ঠুর হত্যাযজ্ঞে নিহত হাজার হাজার নিরীহ মানুষ ও নয়-মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধে প্রাণ বিসর্জনকারী লক্ষ লক্ষ শহীদদের ও নিপীড়িত জনতার আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

সভায় বক্তাগন ২৫শে মার্চকে প্রথম বারের মত গণহত্যা দিবস ঘোষণা করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান।

বক্তাগন বলেন, যুদ্ধাপরাধী আলবদর রাজাকারদের বিচার ও নির্মূলের পাশাপাশি এবার বাংলাদেশ থেকে জঙ্গি -মৌলবাদীদের নির্মূলের জন্য সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

যে জাতি নয় মাসে একটি দেশ স্বাধীন করতে পারে, সে বাংগালী জাতির পক্ষে জঙ্গি নির্মূল করা অসম্ভব কিছু নয়।

স্বাধীনতা বিরোধীরা ক্ষমতা দখল এবং সংবিধান পরিবর্তন করে বাংলাদেশকে মৌলবাদী জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিনত করার যে সুদূর প্রসারী ষড়যন্ত্র করেছিল, দুর্ভাগ্য আজও তার কুফল জাতিকে ভোগ করতে হচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন, বিএনপি-জামাত বাংগালী জাতিকে ধর্মীয় আবরনে ভাগ করে সংঘ্যালঘু ধর্মীয় সম্প্রদায়কে দ্বিতীয়, তৃতীয় শ্রেণীর নাগরিকে পরিণত করে । দুইটি নাম হলেও বিএনপি ও জামাত মূলত একই আদর্শের অনুসারী এবং তাঁরাই ঘৃণা ও সাম্প্ৰদায়িকতাকে উস্কে দিয়ে বাংলাদেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্ঠা চালাচ্ছে।

এখন শুধু বাংলাদেশ নয় বিদেশেও প্রবাসী বাংগালীদের একটি গোষ্ঠী শিক্ষিত হয়েও সাম্প্রদায়িক ও মৌলবাদী রূপে আবির্ভূত হয়েছে যা আমরা এই বোস্টন শহরেও দেখতে পাচ্ছি।

মৌলবাদীরা বাংলাদেশের মানুষকে বাংগালী বা মানুষ হিসাবে দেখেনা, দেখে মুসলমান, হিন্দু ,বৌদ্ধ, ক্রিষ্টান ইত্যাদি রূপে। বক্তাগন বঙ্গবন্ধুর জাতীয় চার মূল নীতির আলোকে বাংলাদেশকে পরিপূর্ন ভাবে ধর্মনিপেক্ষ দেশে হিসাবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানান।

সভায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা ডক্টর বিনয় পাল, নিউ ইংল্যান্ড ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান, নিউ ইংল্যান্ড মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসিম পারভীন, আওয়ামী লীগ নেত্রী সোফিদা বসু, ভারতীয় বাংগালী ও গবেষক ভানু দাশ, বেইনের সাবেক সভাপতি শহিদুল ইসলাম প্রিন্স, বেইনের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক নোমান চৌধুরী, সহ-সাধারণ সম্পাদক কাওসার হক বুলবুল , রবিন দাশ পংকজ দাশ, শহিদুল ইসলাম রনি। নৈশ ভোজের মাধ্যমে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান শেষ হয়।

bangla

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *