দীর্ঘ দেড়যুগ পর রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রেসউইং

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্তমানকন্ঠ ডটকম, সৌদি আরব : মধ্যপ্রাচ্যে সর্ববৃহত সৌদি আরবের বাংলাদেশ দূতাবাসে দীর্ঘ দেড়যুগ পর পুনরায় প্রেসউইং চালু এবং কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।মোহাঃ ফখরুল ইসলাম বিসিএস(তথ্য) এই দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ্। গতকাল রিয়াদে আনুষ্ঠানিকভাবে নতুন কর্মকর্তাকে সংবাদমাধ্যম কর্মীদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেছেন, সৌদি আরবে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরো বেশি উজ্জ্বল করার ক্ষেত্রে প্রেসউইং জোড়ালো ভূমিকা রাখবে।প্রবাসী সংবাদকর্মী এবং বাংলাদেশি কম্যুনিটির দীর্ঘদিনের দাবি ছিল দূতাবাসের প্রেসউইং চালু এবং কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া। কাজটি করতে পেরে আমরা আনন্দিত।

বিগত দিনের মতো এই উইংটি যেন আবারো বন্ধ হয়ে না যায় সে জন্য রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ্ সবাইকে সচেতন হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। তাঁর মতে, বিদেশে তথ্যগতভাবে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার ধারাবাহিক কাজে প্রেসউইং-এর প্রতি প্রবাসীদের সহযোগিতা থাকা খুবই জরুরি। এ বিষয়ে কম্যুনিটি থেকে দলমত নির্বিশেষে সহযোগিতা করার উদাত্ত আহ্বান জানান তিনি।

রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ্’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দূতাবাসে নবনিযুক্ত কার্যালয় প্রধান ড. ফরিদউদ্দিন আহমদ। এ সময় রিয়াদ কম্যুনিটির রাজনৈতিক ও সামাজিক ব্যক্তিরা বক্তব্য দিতে গিয়ে বাংলাদেশ সম্পর্কে বিভিন্ন মিডিয়ার অপপ্রচারের ওপর প্রেস-উইংকে নজরদারি করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেন।

সৌদি আরবের বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভারতীয় এবং পাকিস্তানি সংবাদকর্মীদের বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নিয়ে নেতিবাচক খবর প্রচার এবং সোস্যাল মিডিয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যমূলক অপপ্রচারের ওপর প্রেসউইং-এর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বক্তারা এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যও নবনিযুক্ত কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানান।

এ ছাড়াও দেশের বিভিন্ন গণ্যমাধ্যমে কাজ করছেন এমন প্রবাসী সাংবাদিকদের প্রেসউইং-এ দাপ্তরিকভাবে তহশীলভূক্ত করার জন্য দূতাবাসের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বক্তারা। দেশের গণমাধ্যমে কাজ করছেন এমন প্রবাসী সাংবাদিকদের নিজ নিজ সংবাদপ্রতিষ্ঠানের তহশীল নিশ্চিত করে দূতাবাসে তালিতকাভুক্ত করার কথা বলেন।

এতে বক্তব্য রাখেন, ডা. আরিফুর রহমান, মোহা. আলী নূর, প্রকৌ. মোয়াজ্জেম হোসেন, গোলাম মহীউদ্দীন, সেলিম ভুঁইয়া, এম আর মাহবুব, আব্দুল জলিল, শহিদ মাদবর, সাংবাদিক অহিদুল ইসলামসহ গণমাধ্যমের কয়েক জন সাংবাদিক।

নবনিযুক্ত প্রেসউইং কর্মকর্তা মোহা. ফখরুল ইসলাম এ সময় বলেন, সৌদি আরবে প্রবাসী সাংবাদিকরা বিভক্ত না থেকে এক দলভুক্ত হয়ে কাজ করলে দূতাবাসের পক্ষে কাজ করা আরো সহজ হবে। তিনি দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে সাংবাদিকতা যেন না হয় সে জন্য সকলকে অনুরোধ করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যে-যেই দল করুক, বাংলাদেশ সবার। বিদেশের মাটিতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল রাখার জন্য আমরা সবাই এক হয়ে কাজ করবো এটাই সবচে বড় কথা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শ্রম-কাউন্সেলর, ডিফেন্স এ্যটাসে, সোনালি ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসারসহ দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সনে মো. হানিফ-এর অবসর গ্রহণের দীর্ঘ ১৯ বছর পর দ্বিতীয় সচিব মো. ফখরুল ইসলামের নতুন করে প্রেসউইং কর্মকর্তা হিসেবে এই দায়িত্ব গ্রহণ। দূতাবাসে প্রেসউইং কর্মকর্তা নিয়োগের জন্য প্রবাসী সাংবাদিক এবং বাঙালি কম্যুনিটির পক্ষ থেকে ইতিপূর্বে জোড়ালো দাবি ছিল। রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ্ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক ইচ্ছার ফলশ্রুতি হিসেবে কর্মকর্তা নিয়োগে সরকারের বহুবিধ কর্মসাফল্যের মতোই সৌদি-বাংলাদেশ সম্পর্কোন্নয়নে প্রেসউইং যথাযথ ভূমিকা রাখবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *