সৌদিতে সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ বৃদ্ধি হবেনা—সৌদি ইমিগ্রেশন, অবৈধ বাংলাদেশি প্রবাসীদের দেশে ফেরত যাবার আহবান জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্তমানকন্ঠ ডটকম, সৌদিআরব : সৌদি আরবে অবৈধভাবে বসবাসরত শ্রমিকদের বিনা জেল জরিমানায নিজ দেশে ফেরত যাবার সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ বৃদ্ধি করা হবে না বলে জানিয়েছেন সৌদি পাসর্পোট ডির্পাটমেন্টের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সোলাইমান আল ইয়াহিয়া । গতকাল স্হানীয় গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে তিনি আরো বলেন, “সাধারণ ক্ষমার সময় কোনভাবেই আর বাড়ানো হবে না। যেসব অবৈধ প্রবাসী সাধারণ ক্ষমার সুযোগ নেননি তারা অবিবেচক। তারা আইনের প্রতি কোনো সম্মান দেখায়নি। স্বেচ্ছায় সৌদি আরব ছাড়া ও পরে যে কোনো সময় বৈধভাবে আবার সৌদি আরবে আসার জন্য সুযোগ রাখা হয়েছিল তাদের জন্য। এটা ছিল তাদের জন্য সুবর্ণ সুযোগ।”

সোলাইমান আল ইয়াহিয়া আরোও বলেন, “যারা সাধারণ ক্ষমার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেও সৌদি আরবে অবস্থান করবেন তাদেরকে জেল জরিমানা করা হবে। শিগগিরই আইন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হবে। এতে অংশ নেবে সরকারের ১৯টি বিভাগ।”

‘নেশন ফ্রি অব ভাইওলেটরস’ শিরোনামে চারমাস মেয়াদী সাধারণ ক্ষমার সময় শেষ হওয়ার পর এমন ঘোষণা দেন তিনি ।

এদিকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ, অবৈধ বাংলাদেশিদের দেশে ফেরত যাবার আহবান জানিয়ে বলেন, তারা পুনরায় বৈধভাবে সৌদি আরব আসতে পারবে, এতে কোন সমস্যা হবে না। তিনি বাংলাদেশী প্রবাসী নাগরিকদের অবৈধ কাজে জড়িত হয়ে দেশের সন্মান নষ্ট না করারও আহবান জানান।

সৌদি আরবের প্রবাসী বাংলাদেশীদের যে কোন প্রয়োজনে দূতাবাস পাশে আছে, দূতাবাসের দরজা তাদের জন্য সবসময় খোলা রয়েছে।সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ গতকাল বৃহঃবার সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দাম্মামে সোনারগাঁও, নারায়ণগঞ্জ প্রবাসী ও বাংলাদেশ সোসাইটি দাম্মাম আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন।

সাধারণ ক্ষমার আওতায় আউট পাস সংগ্রহ করে দেশে ফিরতে আবেদন করেছেন ৫০ হাজারের বেশি বাংলাদেশি। তথ্য মতে, এরই মধ্যে এ সুযোগ নিয়ে মোট ৬ লাখেরও বেশি অবৈধ বিদেশি শ্রমিক সৌদি আরব ত্যাগ করেছেন।তাদের মধ্য থেকে আবার নতুন কাজের ভিসা নিয়ে বৈধভাবে সৌদি আরবে ফিরে এসেছেন ১৫ হাজারেরও বেশী শ্রমিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *